breakfast

সকালের নাস্তার যে নিয়মগুলো ওজন কমাতে কার্যকর

  •  Articles প্রবন্ধ
  • Comments Off on সকালের নাস্তার যে নিয়মগুলো ওজন কমাতে কার্যকর

স্বাস্থ্য সচেতন হোন বা নাই হোন ওজনটা একটু বেড়ে গেলে অনেকেই কিন্তু এ জনিত সমস্যা নিয়ে বিপদে পড়ে যান। আর ওজনটা যদি অল্প অল্প করে বাড়তেই থাকে তাহলে তা হয়ে যায় বিকট দুশ্চিন্তার বিষয়। তাই ওজনটা যেন বেড়ে না যেয়ে নিয়ন্ত্রণের মধ্যেই থাকে এজন্য প্রতিনিয়ত কিছু নিয়মশৃঙ্খলার মধ্যে চলতে হয়। আর প্রতিদিনের খাদ্যাভ্যাসের একটা গুরুত্বপূর্ণ অংশ হল সকালের নাস্তা, যা একজন ব্যক্তির ওজন বাড়া-কমার ওপর এক বিশাল প্রভাবক হিসেবে কাজ করে। সকালের নাস্তা একদমই না খাওয়ায় এবং বিশেষ করে স্বাস্থ্যকর নাস্তা না খাওয়ায় ওজন বেড়ে যেতে পারে। তাই সকালের নাস্তায় যদি কিছু কার্যকরী নিয়ম মেনে চলতে পারেন তাহলে ওজন নিয়ন্ত্রনে রাখাটা একদম সহজ। ওজন কমাতে চাইলে সকালের নাস্তায় যে নিয়মগুলো সকলের মেনে চলা উচিত :

নাস্তায় রাখতে হবে ৮ গ্রাম ফাইবার

সকালের নাস্তায় এমন কিছু খাওয়া উচিত যা অনেকটা সময় ধরে ক্ষুধা নিবারন করে। এতে করে স্বভাবতই দুপুরের খাবার কম খাওয়া হবে। এবং সেকারণেই সকালের নাস্তায় বেশি রাখা উচিত ফাইবার সমৃদ্ধ খাবার। তাই সকালের নাস্তায় অন্তত ৮ গ্রাম ফাইবার রাখার চেষ্টা করুন। রাতের মত একটা দীর্ঘ সময় অতিক্রান্তের পর দিনের প্রথম খাবারটাই হল নাস্তা। পুরো দিনের জন্যই পূর্ণাঙ্গ প্রস্তুতি নিতে এ নাস্তায় খাওয়া উচিৎ এমন কিছু যা আপনার ক্ষুধা নিবারিত করে আপনাকে শক্তি যোগাবে দিনভর। আর এ কাজটাই করে থাকে ফাইবার সমৃদ্ধ নাস্তা। নিউট্রশনিস্টদের মতে একটি প্রমান পরিমানের নাস্তায়

নাস্তা করতে হবে সকাল সকাল

ঘুম থেকে উঠার অন্তত ১ ঘণ্টার মধ্যে সকালের নাস্তা সেরে নেয়া স্বাস্থ্যের জন্য ভালো। এটি আমাদের হজমক্রিয়া সঠিকভাবে পরিচালনা করে এবং এর প্রভাব পড়ে ওজন বাড়ার ওপর। সকালে তাড়াতাড়ি নাস্তা করে ফেললে পরবর্তীতে অনেক বেশি মাত্রায় ক্ষুধা লাগে না যা আমাদের অস্বাস্থ্যকর খাওয়া থেকে বিরত রাখে।

Comments are closed.