bathtab

পেতে চাইলে নান্দনিক স্নানঘর

আপনার রুচির চমৎকার পরিচয় পাওয়া যায় যখন আপনার অন্দরসজ্জার সৌন্দর্য ছড়িয়ে পড়ে স্নানঘরেও। নান্দনিক আবহটুকু পরিব্যপ্ত হয় স্নানঘরের সর্বত্র। বেসিন, কেবিনেট, আয়না আর শৌখিন কিছু সামগ্রীর ব্যবহারে ছোট পরিসরের স্নানঘরেও ফুটিয়ে তোলা হচ্ছে স্নিগ্ধতার আবেশ। খুব সাধারণ জিনিসের ব্যবহারেই সাজাবেন স্নানঘর, আর তাতেই হবে বাজিমাত! – এমনটাই বলে থাকেন এক্সটেরিয়র-ইন্টেরিয়র ডিজাইনাররা।

  • এখনকার সময়ে স্নানঘরে কেবিনেটের ব্যবহারটা বেশ জনপ্রিয়তা লাভ করেছে। ছোট বা বড় – আয়তন যেমনই হোক না কেন কেবিনেট এর । সাধারণত,  কেবিনেট তৈরি করতে বব্যবহৃত হয় সেগুন,  শাল শীলকড়ই এর মানের কাঠ। তবে বাজেট কম হলে, তাহলে বিভিন্ন রকমের যে বোর্ডগুলো বাজারে পাওয়া যায়, যেমন বার্মা টিক, ব্রাউন টিক – তা দিয়েই কেবিনেট তৈরি করিয়ে নিতে পারবেন ।
  • বাথ্রুমের জন্য কেবিনেট বানানোর পর তাতে পলিশ করে নিতে পারেন। এক্ষেত্রে লেকার পলিশ সবথেকে ভালো কারন এতে পানি লাগলেও কাঠ সুরক্ষিত থাকবে,  নষ্ট হবে না।
  • স্নানঘরের মেঝেতে অফ হোয়াইট বা হালকা সাদা রঙের টাইলস ব্যবহার করা ভালো। খুব গাঢ় রং যেমন কালো বা বাদামী রঙের টাইলসের ব্যবহার স্নানঘরের পরিসরকে আরও ছোট করে তলে।
  • বাথরুমে যে আয়না ব্যবহৃত হয় তার চারদিকে একটি কাঠের ফ্রেম বসিয়ে নিয়ে তাতে খোদাই করে নিতে পারেন পছন্দমত নকশা।
  • আপনার বাথরুমের আয়নার নিচে একটি কাচের তাক বসিয়ে নিন। এই কাচের তাকে বিভিন্ন প্রসাধনীগুলো যেমন সাবান, শ্যাম্পু ইত্যাদি রাখতে পারেন।
  • বাথরুমের তাকের ছোট পরিসরে একসঙ্গে অনেকগুলো জিনিস রাখার ফলে ব্যবহারের সময় স্বাচ্ছন্দ্য পাওয়া যায় না। এই অসুবিধা দূর করতে দেয়ালের্ একটি সুবিধাজনক স্থানে প্রসাধনীর কাউন্টার বানিয়ে নিতে পারেন।
  • হাতে আঁকা কাচ ত্রিভুজ নকশায় কেটে দুই বা তিন ধাপে তা দেয়ালে বসিয়ে দিন। ওপরের দিকের প্রথম ধাপটিতে রাখতে পারেন রংবেরঙের ফুল বা শোপিস। প্রসাধনী রাখার জন্য অন্য তাকগুলোকে বেছে নিন।
  • স্নানঘরটিকে সাজিয়ে তুলতে পারেন শৌখিন সামগ্রী দিয়েও। কিছু শৌখিন সামগ্রী বাথরুমের বেসিন কেবিনেটের ওপর সাজিয়ে রাখতে পারেন । বাথরুমে রাখা শোপিসগুলো যদি চিনামাটির তৈরি হয় তাহলে সবথেকে ভালো।
  • বাথরুমে একটির বদলে দুটি করে তোয়ালে ব্যবহার করতে পারেন। তবে এ ক্ষেত্রে প্রতি ১৫ দিন পর পর তা বদলে নিতে ভুলবেন না।
  • বাথরুমের টাইলস পরিষ্কার রাখা দুষ্কর। আর এই টাইলসকে একদম দাগহীন রাখতে চাইলে বাথরুম ব্যবহার করা শেষে বাথরুমের পুরো মেঝেতে পানি ছড়িয়ে দিয়ে পরিষ্কার করুন এবং তা শুকিয়ে নিন।
  • পানিভর্তি বাটি নিয়ে তাতে ছড়িয়ে দিতে পারেন কিছু সুগন্ধি ফুল.

Comments are closed.