WiFi Router এর গতি বাড়াবে যে ৬টি অভিনব কৌশল

Reviews

Verified

তথ্য প্রযুক্তি যত উন্নত হচ্ছে আর সাধারন মানুষ যত বেশী নতুন নতুন প্রযুক্তিকে জীবনে গ্রহন করে নিচ্ছে, ততই বেশী প্রযুক্তি মানুষের জীবনযাপনকে আরও সহজ করার লক্ষ্যে অভীষ্ট। প্রযুক্তির উন্নতির পথ ধরেই মানুষের ব্যবহার্য প্রযুক্তিতে কমছে তারের ব্যবহার। আগে যেখানে টেলিফোন লাইনের জালে জর্জরিত হতে হত, সেখানে এখন ব্যবহার হয় মোবাইল ফোন। ডেস্কটপের সিপিইউ, কীবোর্ড, মাউজের তারের গোলকধাঁধার জায়গা দখল করে নিয়েছে সিম্পল ল্যাপটপ।

আর এই নতুন তারবিহীন সিম্পল উদ্ভাবনের জের ধরেই আগে যেখানে ডাটা আদান-প্রদানের জন্য আমরা ব্রডব্যান্ডের ক্যাবল কানেকশন ব্যবহার করতাম, সে স্থান দখল করেছে ওয়াই-ফাই এর ক্যাবলবিহীন ইন্টারনেট কানেকশন। আর আপনার অফিস বা সম্পূর্ণ বাসায় ওয়াই-ফাই এর মাধ্যমে ইন্টারনেট কানেকশন নিতে হলে আপনার প্রয়োজন হবে একটি রাউটার (ROUTER) এর।

রাউটার এর মাধ্যমে ওয়াই-ফাই ইন্টারনেট সংযোগ এক নতুন মাত্রা যোগ করেছে আমাদের আধুনিক জীবনে। কিন্তু, রাউটার অনেক সময় ওয়াই-ফাই ইন্টারনেট এর সংযোগকে বিঘ্নিত করে, স্লো করে দেয়। তাই আপনি যদি চান আপনার ইন্টারনেট কানেকশন স্লো হয়ে কাজ বিঘ্নিত না হয়, তাহলে রাউটার এর গতি বৃদ্ধির জন্য টিপসগুলো দেখে নিন –

রাউটারের উপযুক্ত ফ্রিকোয়েন্সি নির্ধারণ

যদি রাউটারের গতি ঠিক রাখতে চান, তাহলে বেছে নিতে হবে রাউটারের সঠিক ফ্রিকোয়েন্সি। তবে, রাউটারটির ব্যবহার কোথায় হচ্ছে তার উপর নির্ভর করে ফ্রিকোয়েন্সি নির্ধারণ করতে হবে। ওয়াই-ফাই রাউটার এর জন্য সবথেকে কার্যকরী ফ্রিকোয়েন্সি দু’টি – ২.৪ গিগাহার্জ এবং ৫ গিগাহার্জ। মালটিস্ট্রয়েড বা বহুতল বিল্ডিং এর জন্য রাউটারের ২.৪ গিগাহার্জ ফ্রিকোয়েন্সি সবথকে কার্যকর। আর আপনি যদি অফিস স্পেস বা বড় বাসায় রাউটার কাভারেজ দিতে চান তাহলে ৫ গিগাহার্জ ফ্রিকোয়েন্সি বেছে নিন।

রাউটারের সঠিক অবস্থানে স্থাপন

যে জায়গাটি আপনি রাউটার কাভারেজের আওতায় আনতে চাচ্ছেন, তার ঠিক মধ্যাবস্থানে একটু উঁচু কোন স্থানে রাউটার রাখতে হয় – এমনটাই বলে বিশ্বখ্যাত টেক অনলাইন ম্যাগাজিন Mashable। যে রাউটারগুলোর অ্যান্টেনা থাকে তাদের সিগন্যাল সর্বাধিক পরিব্যপ্ত করতে রাউটারের অ্যান্টেনাগুলো ভারটিকাল (Vertical) অবস্থানে রাখতে হবে। ইট-কংক্রিটের পুরু দেয়াল থেকে রাউটার দূরে রাখাটাই শ্রেয়।

পানি ও জানালা থেকে দূরে

যেহেতু পানি আর জানালার কাঁচ রাউটারের সিগন্যালকে খুব কার্যকরভাবে বাঁধা দেয়, তাই বাসা বা অফিসে পানির পাইপলাইন বা কাঁচের জানালার সন্নিকটে রাউটার একদম রাখা যাবেনা। আর না হলে, রাউটারের গতি খুব লক্ষণীয়ভাবে ড্রপ করে।

রাউটার সিকিউরিটি

রাউটারের গতি নিশ্চিত করতে আপনাকে আপনার রাউটারের যথার্থ সিকিউরিটিও নিশ্চিত করতে হবে। আপনার রাউটারের কানেক্টিভিটির জন্য সর্বদা পাসওয়ার্ড ব্যবহার করুন এবং সে পাসওয়ার্ড যাতে শক্তিশালী হয় সেদিকেও খেয়াল রাখবেন। এতে আপনার অনুনমোদিত কোন ব্যক্তি আপনার ওয়াই-ফাই কানেকশন ব্যবহার করে রাউটারের গতি কমিয়ে দিতে পারবেনা। আর, অবশ্যই আপনার রাউটারের কানেক্টিভিটি পাসওয়ার্ড প্রতি মাস অন্তর অন্তর পরিবর্তন করতে ভুলবেন না।

রাউটার পরিবর্তন

সব কিছুরই একটা নির্দিষ্ট ব্যবহারসীমা থাকে। আপনার রাউটারও একটি নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত ভালো সার্ভিস দিবে। কিন্তু অনেক দিন ব্যবহারের পর, অন্যান্য সব ঠিক থাকলেও রাউটারের গতি কমে যাওয়াটাই স্বাভাবিক। তাই, অনেকদিন ব্যবহৃত হলে তুলনামূলকভাবে আরো উন্নত ফিচার সম্বলিত একটি নতুন রাউটার কিনুন।

গতি বাড়াবে নেটওয়ার্ক এক্সটেন্ডার

কোন রাউটার পুরনো হয়ে গেলে বা গতি খুব বেশী কমে গেলে রাউটারের গতি বাড়াতে ব্যবহার করতে পারেন Network Extender। আপনার রাউটারের সাথে নেটওয়ার্ক এক্সটেন্ডার ব্যবহার করলেই দেখবেন রাউটারের গতি লক্ষণীয়ভাবে বৃদ্ধি পাবে,আপনার বাসা বা অফিসের যে যে এরিয়াতে আগে ইন্টারনেট কাভারেজ পাওয়া যেত না, সেখানেও পাওয়া যাবে।