অলিভ অয়েল এর ৮টি অভিনব ব্যবহার যা আপনি জানতেন না

Reviews

Verified

দেশ থেকে বিদেশে ঘুরতে যাচ্ছেন বা বহুদিন পর বিদেশ থেকে দেশে নিজের প্রিয় মানুষগুলোর কাছে ফিরে আসছেন – এমন আনন্দঘন একটা সময় কোনভাবেই নষ্ট হোক এমনটা আমরা কেউই চাই না। কিন্তু এমন অনাকাঙ্ক্ষিত কিছুই হয়ে যেতে পারে এয়ারপোর্টে আপনার অসতর্কতার জন্য। প্রিয় মানুষের জন্য নিয়ে আসা উপহার বা বিদেশে যাওয়ার সব প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সহ যদি আপনার ব্যাগ-লাগেজ হারিয়ে যায় এয়ারপোর্টে তখন মাথায় হাত উঠে যাওয়া ছাড়া আর কিছু করার থাকেনা, তাই না? না, আসলে তা না। যদি এমন কোন অনাকাংখিত পরিস্থিতির সম্মুখীন আপনি হয়েই যান তাহলে আপনাদের যা করতে হবে সেদিকে আপনাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

ইমিগ্রেশন শেষে লাগেজ বেল্টে পৌঁছেই উপস্থিত সংশ্লিষ্ট এয়ারলাইন্সের কর্মককর্তাকে আপনার বোর্ডিং-পাশ/লাগেজট্যাগ দেখিয়ে জেনে নিন –

• আপনার কোনও লাগেজ লেফ্ট বিহাইন্ড বা মিসিং হয়েছে কিনা।

• লেফ্ট বিহাইন্ড হলে, কী কারণে হয়েছে (অর্থাৎ আপনার লাগেজের ত্রুটি, নাকি এয়ার কনটেইনারের স্পেস সংকুলান সমস্যা) জেনে নিন।

• কর্মকর্তাদের পরামর্শমতে যথাযথভাবে কমপ্লেইন করে আপনার ফোন নাম্বার রেখে অপেক্ষা না করে রিসিপ্ট নিয়ে গন্তব্যে চলে যেতে পারেন।

• পরবর্তিতে ‘লস্ট এন্ড ফাউন্ড’ থেকে ফোনে খবর পেলে বিমানবন্দরে এসে পাসপোর্ট, বোর্ডিং-পাস এবং লাগেজ-ট্যাগ শো করে লাগেজসহ আপনার ‪যাতায়াত খরচ‬ বুঝে নিন।

• লাগেজ মিসিং হলে ৩০ দিন পর আইএটিএ নিয়ম অনুযায়ী আপনার ক্ষতিপূরণ বুঝে নিন। ‪

• এর ব্যতয় দেখলে কর্তব্যরত ম্যাজেস্ট্রেটের কাছে অভিযোগ করুন‬।

উল্লেখ্য, লাগেজ লেফ্ট বিহাইন্ড/মিসিং আছে কিনা তা প্রথমেই সংশ্লিষ্ট এয়ার লাইন্সের কর্তকর্তা জানিয়ে দেয়ার কথা।